বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট দেখার নিয়ম ২০২১-২০২২

বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট দেখার নিয়ম ২০২১-২০২২

বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট দেখার নিয়ম: কওমি মাদ্রাসাকে সরকার স্বীকৃতি দেবার পর থেকে কওমি মাদ্রাসায় পড়ালেখার হার অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ শিক্ষার স্তরকে সরকার মাস্টার্স বা এর সমমান হিসেবে মর্যাদা দিয়েছে। প্রতিবছর বেফাক পরীক্ষায় মাদ্রাসার অনেক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে থাকে। আজকে আমরা জানবো বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট দেখার নিয়ম

বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট

প্রতিবছর একটি নির্দিষ্ট সময়ে বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট প্রকাশিত হয়। অন্যান্য পাবলিক পরীক্ষার মত এটিও একটি পাবলিক পরীক্ষা। সাধারণত কওমি মাদ্রাসার পরীক্ষার্থীরা বেফাক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে থাকে। পরীক্ষার্থীর সংখ্যা বেশি হলেও অন্যান্য পাবলিক পরীক্ষার চাইতে এখানে পরীক্ষার্থী সংখ্যা তুলনামূলক কম থাকে।

তাই আমরা অনেকেই হয়তো জানি না কিভাবে বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট পাওয়া যেতে পারে। বেফাক পরীক্ষার ফলাফল আপনি অনলাইনে এবং এসএমএস দুই মাধ্যমেই দেখতে পারবেন।

প্রকৃতপক্ষে অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের এড্রেস না জেনে থাকার কারণে আপনারা হয়তো অনেকেই বেফাক পরীক্ষার রেজাল্টদেখার লিংক বা অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে এটি কিভাবে দেখতে হয় তা জানতে পারছেন না।

আপনাদের সুবিধার জন্য বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট দেখার নিয়ম ও লিংক আমাদের ওয়েবসাইটের নিচের দিকে শেয়ার করা হলো এবং আপনারা যদি এই লিংকের মাধ্যমে অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে ফলাফল দেখতে ব্যর্থ হন তাহলে কিছুটা সময় অপেক্ষা করে সার্ভার ঠিক হওয়ার জন্য ধৈর্য ধারণ করুন।

অনলাইনে বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট দেখার নিয়ম

  • অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে আপনারা ফলাফল দেখতে পারবেন সেই অফিশিয়াল ওয়েবসাইট হলো http://wifaqresult.com/ । এই লিংক আপনারা এখান থেকে কপি করবেন এবং লিংক কপি করে নিলেই সরাসরি আপনারা ফলাফল দেখে নেওয়ার পেজে যেতে পারবেন এবং সেখানে গিয়ে ফলাফল দেখতে হলে আপনাদেরকে সর্ব প্রথমে আপনাদের পরীক্ষার সাল নির্বাচন করতে হবে।
  • প্রথমে পরীক্ষার্থীর পরীক্ষার সন (ইংরেজি) সিলেক্ট করুন। অর্থাৎ যেই সালে পরীক্ষা দিয়েছেন সেই সালটি সিলেক্ট করুন।
  • এরপরের ঘরে পরীক্ষার্থীর মারহালা তথা শ্রেণী/বিভাগ সিলেক্ট করতে হবে। আপনি কোন বিষয়ের ফলাফল দেখতে চাচ্ছেন নিচের তালিকা থেকে তা নির্বাচন করুন।
  • তাকমিল রেজাল্ট
  • ফযীলত রেজাল্ট
  • সানাবিয়া উলইয়া রেজাল্ট
  • মুতাওয়াসসিতাহ রেজাল্ট
  • ইবতিদাইয়্যাহ রেজাল্ট
  • হিফজুল কুরআন রেজাল্ট
  • ইলমুত তাজবীদ ওয়াল কিরাআত রেজাল্ট
  • এবার নিচের দেওয়া ফর্মে আপনার রোল নাম্বার লিখুন।
  • ৩য় ঘরে পরীক্ষার্থীর রোল নম্বরটি (প্রবেশপত্র অনুযায়ী) লিখতে হবে।
  • সব ঘর সঠিকভাবে পূরণ করা শেষ হলে “দাখিল করুন” লেখায় ক্লিক করুন। সবকিছু ঠিক থাকলে পরবর্তী পেজে পরীক্ষার রেজাল্ট দেখতে পাবেন।

এসএমএস এর মাধ্যমে বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট দেখার নিয়ম

বেফাক পরীক্ষার ফলাফল পাওয়ার জন্য যে ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করা হয় সেটি অনেক সময়ে সার্ভার ডাউন হয়ে থাকে। তাই আপনারা পরীক্ষার রেজাল্ট প্রকাশিত হওয়ার জন্য ওয়েবসাইটে গেলে পরীক্ষার ফলাফল নাও পেতে পারেন। সবচেয়ে দ্রুত ফলাফল পাওয়ার জন্য এসএমএস এর মাধ্যমে রেজাল্ট নিতে পারেন।

এতে করে আপনাকে আর ওয়েবসাইটে ধৈর্য ধরে বসে থাকতে হবে না। টেলিটক সিম ব্যবহার করলে খুব দ্রুত এসএমএস পেতে পারেন। তবে অন্য সিম ব্যবহার করে এসএমএস দিলেও হবে। সে ক্ষেত্রে কিছুটা দেরি হলেও হতে পারে।

আরো পড়ুন;- পাবলিক পরীক্ষার রেজাল্ট দেখার নিয়ম [সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি]

মোবাইলে sms এর মাধ্যমেও বেফাক পরীক্ষার ফলাফল দেখতে পারবেন। এজন্য নিচে দেওয়া নির্দেশনা অনুসরণ করুন।

BEFAQ <space> মারহালার প্রথম অক্ষর <space> রোল নম্বর এবং সেন্ড করুন 9933 নম্বরে (যে কোন অপারেটর থেকে)

উদাহরণঃ BEFAQ T 23657 — Send 9933

প্রত্যেক মারহালার প্রথম অক্ষর

  • তাকমিল (Takmil) – T
  • ফজিলত (Fazilat) – F
  • সানাবিয়া উলইয়া (Sanabia) – S
  • মুতাওয়াসসিতাহ (Mutawassitah) – M
  • ইবতিদাইয়্যাহ (Ibtidaiyah) – I
  • হিফযুল কুরআন (Hifzul Quran) – H
  • ইলমুত তাজবীদ ওয়াল কিরাআত (Qira) – Q

বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট মাদরাসাওয়ারী

মাদরাসাওয়ারী বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত ফলাফল দেখতে http://wifaqresult.com/ ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন।

  • উপরের লিংকে ক্লিক করার আপনি প্রাতিষ্ঠানিক ফলাফল দেখার পেজে চলে যাবেন। সেখানেও তিনটি খালিঘর দেখতে পাবেন। সেই তিনটি বক্স পূরণ করতে হবে।
  • পরীক্ষার সনঃ প্রথমে যেই বছরের ফলাফল দেখতে চান সেই পরীক্ষার সন (ইংরেজি) সিলেক্ট করুন।
  • মারহালাঃ এই ঘরে পরীক্ষার্থীদের মারহালা তথা শ্রেণী/বিভাগ সিলেক্ট করুন। তাকমিল রেজাল্ট, ফযীলত রেজাল্ট, সানাবিয়া উলইয়া রেজাল্ট, মুতাওয়াসসিতাহ রেজাল্ট, ইবতিদাইয়্যাহ রেজাল্ট, হিফজুল কুরআন রেজাল্ট, ইলমুত তাজবীদ ওয়াল কিরাআত রেজাল্ট যে পরীক্ষার রেজাল্ট জানতে চান সেটি সিলেক্ট করতে হবে।
  • ইলহাকঃ সর্বশেষ ও ৩য় ঘরে মাদরাসার ইলহাক নাম্বার দিতে হবে।
  • দাখিল করুনঃ সব ঘর সঠিকভাবে পূরণ করা শেষ হলে “দাখিল করুন” লেখায় ক্লিক করুন। সবকিছু ঠিক থাকলে পরবর্তী পেজে মাদ্রাসার পরীক্ষার রেজাল্ট দেখতে পাবেন।

তবে খেয়াল রাখবেন যে, মাদরাসার ইলহাক দেয়ার সময় ”ম” এর পরিবর্তে ইংরেজীতে “g” ব্যবহার করতে হবে যেমনঃ ম-১/৩০০ এর পরিবর্তে g-1/300।

বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট মাদরাসাওয়ারী
বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট মাদরাসাওয়ারী

বেফাক পরীক্ষার ব্যক্তিগত ফলাফল দেখার নিয়ম

ব্যক্তিগত ফলাফল দেখে নেওয়ার ক্ষেত্রে আপনাদের শুধু আপনার পরীক্ষার সাল, মারহালা নির্বাচন এবং পরীক্ষার রোল নম্বর প্রদান করতে হবে।

আমরা মনে করি যে, খুব সহজ কিছু ধাপ অনুসরণ করে আপনারা http://wifaqresult.com/ লিংক ব্যবহার করে ব্যক্তিগত ফলাফল দেখতে পারবেন এবং আপনারা যখন অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারবেন তখন প্রথমে পরীক্ষার সন, তারপর মারহালা, তারপর রোল, তারপর দাখিল করুন লেখায় ক্লিক করুন।

বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট দেখার নিয়ম
বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট দেখার নিয়ম

বেফাক পরীক্ষায় পাস ফেল বিধি

বেফাক পরিক্ষায় সাধারণত গড় ৩৩ নাম্বার হলে পাস ধরা হয়। ৩৩ এর নিচে নাম্বার হলে ফেল ধরা হয়। তবে, বিশেষ বিষয় (মেইয়ারী বিষয় গুলোতে) অবশ্যই পাস করতে হবে।

একটির বেশি মেইয়ারী বিষয় বা গড় দুটি মেইয়ারী বিষয় ফেল করলে উক্ত পরীক্ষার্থীকে ফেল ধরা হবে। ইবতেদায়ী ও তাকমিল পরিক্ষার্থীদেরকে কুরআন তেলায়াতে অবশ্যই পাস করতে হবে।

কওমি মাদ্রাসার স্তর সমূহ

কওমি মাদ্রাসায় সাধারণত ছয়টি শিক্ষার স্তর আছে। প্রাইমারি থেকে স্নাতক পর্যন্ত এই স্তরগুলো বিদ্যমান। সর্বনিম্ন স্তর হল আল মারহালাতুল ইবতিদাইয়্যাহ। সর্বোচ্চ স্তর হলো এই আল-মারহালাতুত তাকমীল বা দাওরায়ে হাদীস।

  • ১ম স্তরঃ  আল-মারহালাতুল ইবতিদাইয়্যাহ। তথাঃ- সরকারী প্রাইমারী ও ইবতিদাইয়্যার সমমান।
  • ২য় স্তরঃ  আল মারহালাতুল মুতাওয়াসসিতাহ। মা ধ্যমিক সমমান৷
  • ৩য় স্তরঃ আল-মারহালাতুস সানাবিয়্যাহ আল আম্মাহ। তথাাঃ– মাধ্যমিক স্তর ও দাখিল সমমান।
  • ৪থ স্তরঃ– আল-মারহালাতুস সানাবিয়াহ আল উল্ইয়া৷ তথাঃ- উচ্চ মাধ্যমিক ও আলিম সমমান।
  • ৫ম স্তরঃ– আল-মারহালাতুল ফযীলাত। তথাঃ- স্নাতক ডিগ্রী ও ফাযিল সমমান।
  • ৬ষ্ঠ স্তরঃ– আল-মারহালাতুত তাকমীল (দাওরায়ে হাদীস) মাষ্টার্স ডিগ্রী ও কামেল সমমান।

বেফাক পরিচালকরা এইটাকে দুইভাগ করে। প্রথমত, ফরজে আইন তথা বাধ্যতামূলক শিক্ষা। দ্বিতীয়ত, ফরজে কেফায়া তথা উচ্চতর শিক্ষা। তাদের মত অনুযায়ী প্রথম তিন স্তর পড়া ওয়াজিব। বাকিতিন স্তর গুলো ফরজে কেফায়া।

কওমি মাদ্রাসায় পঠিত বই সমূহ 

মারহালাতুত তাকমীল :

  1. বুখারী শরীফ ১ম
  2. মুসলিম শরীফ ১ম
  3. তিরমিযি শরীফ ১ম খন্ড
  4. আবূ দাউদ শরীফ (কামিল)

মারহালাতুল ফযীলত :

  1. মিশকাত শরীফ ১ম খন্ড
  2. তফসীরে বায়যাবী
  3. শরহে আকাঈদে নাসাফী
  4. ফিরাকে বাতেলা।

আল মারহালাতুস সানাবিয়াতুল ’উলইয়া:

  1. মুখতাসারুল মা’য়ানী (১ম অংশ)
  2. নূরুল আনওয়ার (কিতাবুল্লাহ)
  3. মাকামাত।

আল মারহালাতুল মুতাওয়াসসিতাহ :

  1. নাহভে মীর
  2. পাঞ্জেগাঞ্জ/’ইলমুস সরফ
  3. রওযাতুল আদব।

আল মারহালাতুল ইবতিদাইয়্যাহ :

  1. নাযিরা
  2. বাংলা
  3. অংক
  4. উর্দূ

মারহালাতু তাহফীযিল কুরআন :

  1. তিলাওয়াত (ইয়াদ)
  2. তাজবীদ।

মারহালাতু ’ইলমিত তাজবীদ ওয়াল কিরাআত :

  1. তারতীল
  2. হদর।

আশা করছি উপরের আর্টিকেলটি পরে কিভাবে কওমি মাদ্রাসার বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট জানা যায় তা সম্পর্কে জেনেছেন। নিয়মগুলো যথাযথভাবে ফলো করলে আপনি খুব সহজেই বেফাক পরীক্ষার রেজাল্ট জানতে পারবেন।

পরীক্ষার রোল নাম্বার এবং পরীক্ষার ধরন দেওয়ার সময় ভালো করে খেয়াল করে তথ্য দেবেন। তাহলে আর ফলাফল পেতে বিড়ম্বনার শিকার হতে হবে না।

লিখেছেন: রাকিব খান

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *